নবাব আবদুল লতিফ

Page Visited: 149
102 Views

নবাব আবদুল লতিফ ১৮২৬ সালের মার্চ মাসে ফরিদপুর জেলার রাজাপুর গ্রামের জন্মগ্রহণ করেন।

পিতার নাম কাজী ফকির মোহাম্মদ। শিক্ষাবিদ ও সমাজসেবক নবাব আবদুল লতিফ কোলকাতা মাদ্রাসা থেকে ইংরেজী আরবী ও ফারসীতে সর্বোচ্চ শিক্ষা লাভ করেন। ১৮৪৬ সালে ঢাকা কলেজিয়েট স্কুলে শিক্ষকতার মাধ্যমে কর্মজীবন শুরু করেন।পরবর্তী সময়ে তিনি কলকাতা মাদরাসার ইংরেজি ও আরবির অধ্যাপক নিযুক্ত হন। ১৮৮০ সালে বৃটিশ সরকারের নিকট থেকে নবাব এবং ১৮৮৭ সালে নবাব বাহাদুর উপাধি লাভ করেন। বৃটিশ সরকারের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা ছিলেন। ফরিদপুরের কৃতি সন্তান নবাব আবদুল লতিফ মুসলমানদের জন্য আধুনিক জ্ঞান বিজ্ঞানের প্রসার ঘটিয়েছিলেন। বাঙালী মুসলিম সমাজে পাশ্চাত্য শিক্ষা বিস্তার ও মুসলমানদের সামাজিক সাংস্কৃতিক জীবনের উৎকর্ষ ও বিকাশের পথ প্রশস্ত করার জন্য ১৯৬৩ সালে মোহামেডান লেটারারী সোসাইটির প্রতিষ্ঠা করেন। 

তিনি অসাম্প্রদায়িক চরিত্রের অধিকারী ছিলেন। তাঁর কর্ম তাকে সু-প্রতিষ্ঠিত করেছে।নবাব আবদুল লতিফের সবচেয়ে উল্লেখযােগ্য কীর্তি হলাে ১৮৭৩ সনে কলকাতায় মুসলিম সাহিত্য সমাজ প্রতিষ্ঠা। বাংলার মুসলমানদের মধ্যে ইংরেজি শিক্ষা প্রসারে এ প্রতিষ্ঠান বিশেষ ভূমিকা পালন করেছিল। এ সমিতিতে প্রধানত মুসলমানদের সমকালীন বিভিন্ন সমস্যা ও তার যুগােপযােগী সমাধান সম্পর্কে আলােচনা হতাে এবং প্রগতিশীল ভাবধারার সহিত পাশ্চাত্য সভ্যতার সমন্বয় সাধনের আদর্শে বিশ্বাসী ছিল মুসলমানদের শিক্ষাবিস্তারের জন্য আবদুল লতিফের যথেষ্ট অবদান ছিল এবং তার নেতৃত্বে ১৮৭২ সনে সরকারি সাহায্যে মফস্বলে কয়েকটি মাদ্রাসা স্থাপিত হয়। এ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলােতে ধর্মীয় শিক্ষার সঙ্গে আধুনিক শিক্ষার সমন্বয় সাধনে তিনি বিশেষভাবে গুরুত্ব দেন।

শিক্ষা বিষয়ে তিনি সরকারি নীতিকে সমর্থন করেন। হিন্দু কলেজের রক্ষণশীলতা এবং জাতিভেদে প্রথা দূর করে এর দ্বারা সকল মানুষের জন্য উন্মুক্ত করবার সরকারি প্রচেষ্টাকে তিনি স্বাগত জানান। রক্ষণশীল হিন্দু কলেজের প্রেসিডেন্সি কলেজে রূপান্তর করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন ১৮৫৩ সালে। শিক্ষাক্ষেত্রে তাঁর অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৮৬৭ খ্রিষ্টাব্দে মুসলমান সম্প্রদায়ের মধ্যে শিক্ষা বিস্তারের আগ্রহ দেখে আবদুল লতিফকে বড়লাট লরেন্স  তাঁকে ইনসাইক্লোপেডিয়া ব্রিটানিকা ও স্বর্ণপদক প্রদান করেন। ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষাংশে বাংলার মুসলমানদের পুনর্জাগরণে নবাব আবদুল লতিফ নিঃসন্দেহে একজন অগ্রণী ছিলেন। এই সমাজ হিতৈষী ব্যক্তি ১৮৯৩ সালের ১০ জুলাই কোলকাতায় মৃত্যুবরণ করেন।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *