অংশ ব্যান্ডের শুরু থেকে শেষ..

Page Visited: 1199
45 Views

গত ২৯ অক্টোবর ২০২০ তারিখে ফরিদপুরের অন্যতম ব্যান্ড অংশ এর ১ম এ্যালবাম আত্মকথন এর ১ম গান শুরু থেকে শেষ প্রকাশিত হয়ে তাদের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে।পদ্মার দক্ষিণে ঢাকার পার্শ্ববর্তী জেলা ফরিদপুর।শিল্প সংস্কৃতিতে সমৃদ্ধ হলেও এই জেলা শহরে ব্যান্ড মিউজিকে তখন চলছিলো ভাটা।অগ্রজদের ব্যান্ড লাইন আপগুলো তখন স্তিমিত, শহরে কোন কনসার্ট বলতে শুধু বিভিন্ন শিল্পগোষ্ঠীর কমার্শিয়াল বাংলা ও হিন্দি গান পরিবেশনা।এরকম অনেক শো’তে অধিকাংশ নিজের রুচি ও পছন্দের বাইরের গানে ক্ষ্যাপ বাজিয়ে ক্লান্ত দুই গিটারিস্ট,মুবদিউ এবং সুদীপ্ত।তারা নিজেদের একটা ব্যান্ড করার ইচ্ছা পরষ্পরকে জানান,সাথে যুক্ত হয় মুবদিউ এর ভাই মুদাব্বির।

২০১৫ এর ১৪ই আগস্ট গিটার ও ভোকালে মুবদিউ,গিটারে সুদীপ্ত,ড্রামসে মুদাব্বির ও বেইজ গিটারে সোহেলকে নিয়ে যাত্রা শুরু করে ব্যান্ড “অংশ”।পরবর্তীতে ভোকাল হিসেবে যুক্ত হন মেহেদী ও গিটারে তপু।কিছুদিন পর ব্যাক্তিগত কারনে মেহেদী ব্যান্ড ত্যাগ করে এবং এরপর ব্যান্ড ত্যাগ করেন তপুও।তখন ভোকাল ও রিদম গিটারে যুক্ত হন ইশতিয়াব রাজিব,কীবোর্ডে আসেন জুনেট।এসময় ব্যান্ডের প্র‍্যাকটিসের জন্য বায়তুলামানে নিজভবনে একটি রুমের ব্যাবস্থা করে দেন রুবাই ভাই। কিছুদিন পর সোহেল ব্যান্ড ত্যাগ করলে জুনেট ভাই বেজ ধরেন।ব্যান্ডে একমাত্র নারী সদস্য হিসেবে কীবোর্ড ও ভোকালে আসেন তানিয়া।এই লাইনআপে তিনবছর বেশ চলছিলো “অংশ”।


শহরে নিয়মিত শো এর পাশাপাশি মুবদিউ এর কথা ও সুরে তারা শুরু করেছিলো গান তৈরির কাজ।কিছুদিন পর জুনেট ভাই শারীরিক অসুস্থতার জন্য ব্যান্ড ছাড়লে বেজিস্ট হিসেবে ব্যান্ডে যোগ দেয় ধ্রুব তন্ময়।ব্যান্ডে যুক্ত হওয়ার পর মুবদিউ এর সাথে ধ্রুবও নিয়মিত লিরিক ও সুর দিতে থাকে ব্যান্ডে।কিন্তু কিছুদিন পর পড়াশোনা ও পারিবারিক কারনে ব্যান্ড ছাড়ে তানিয়া।এরপর বাঁশিতে যোগদান করে বৃন্ত দাস বাঁধন,ব্যান্ডের প্রয়োজনে কীবোর্ডের দায়িত্বও নেয় সে।তার বাঁশি ব্যান্ডে যোগ করে এক ভিন্ন মাত্রা।এর কিছুদিন পর ব্যাক্তিগত কারনে ব্যান্ড ছাড়েন ইশতিয়াব রাজিব।এই পর্যায়ক্রমিক ভাঙাগড়ায় নিজেদের গান এর কাজ শুধু মন্থর হতে থাকে।কিন্তু গত বছর ব্যান্ড অংশ সিদ্ধান্ত নেয় তাদের প্রথম অ্যালবাম প্রকাশের এবং অক্টোবরের ২৯ তারিখ তারা তাদের প্রথম অ্যালবাম “আত্মকথন” থেকে প্রথম গান “শুরু থেকে শেষ” রিলিজ দেয়। গানটির কথা ও সুর মুবদিউ এর এবং কন্ঠ দেয় বৃন্ত দাস বাঁধন।গানটি তারা একযোগে ইউটিউব,স্পটিফাই,গান অ্যাপ,অ্যাপেল মিউজিক,ডিজার,এমাজন মিউজিক সহ বিভিন্ন স্ট্রিমিংসাইটে রিলিজ করে।সম্প্রতি কলকতার একটি অনলাইন রেডিও “আনকোরা রেডিও”তে তাদের গান বাজছে।


অংশের প্রথম অ্যালবাম “আত্মকথন” এ রয়েছে মোট আটটি গান,গান গুলো তারা পর্যায়ক্রমে আগামি বছরের ভিতর করবে।ব্যান্ড অংশ’র লোগো ও এই অ্যালবাম আর্টটি তৈরি করেছেন অভিষেক শীল।অংশের এই পথচলার একদম শুরু থেকে দিক নির্দেশক ও অভিভাবক হিসেবে সাথে ছিলেন সংগীতপ্রিয় এক ভাই।তার সঠিক দিকনির্দেশনা ছাড়া এই পথচলা এত মসৃণ হতোনা। সবশেষে গত নভেম্বর ৬,২০২০ তারিখে ব্যান্ডে গিটারিস্ট হিসেবে যোগদান করেন অংশ’র সর্বকনিষ্ঠ সদস্য প্রীতম। প্রীতম ফরিদপুর জিলা স্কুলের নবম শ্রেনীর ছাত্র।অংশর বর্তমাব লাইন আপ :এখন অংশ’র বর্তমান লাইন আপ হলো মুবদিউ(গিটার ও ভোকাল),সুদীপ্ত(গিটার),মুদাব্বির(ড্রামস),ধ্রুব(বেজ ও ভোকাল),বাঁধন(বাশি,কীবোর্ড ও ভোকাল)প্রীতম (গিটার)।অংশ’র গান শুনতে, তাদের সাপোর্ট করতে ও নিজেদের মতামত জানাতে আপনারা ঘুরতে আসতে পারেন তাদের ফেসবুক পেইজ ও ইউটিউব চ্যানেল।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *