সেচ্ছায় রক্ত দানে আগ্রহী হচ্ছেন তরুন তরুনীরা

Page Visited: 1218
72 Views

সোস্যাল মিডিয়ার কারনে আজ খুবই অল্প সময়েই কাংখিত রক্তের ডোনার পেয়ে যাচ্ছেন অনেকেই আর এই সুযোগটা পাচ্ছেন ফেসুবক ভিত্তিক কিছু গ্রুপের কারন। তেমনই একটা গ্রুপ আমাদের ফরিদপুর লাইভ গ্রুপ সেই সাথে ফরিদপুর সিটি পেইজ এবং ব্লাড ব্যাংক ফরিদপুর।

গ্রুপের এডমিন প্যালেনের মডারেটরগনও নিয়মিত রক্ত দান করেন সেই সাথে গ্রুপের অসংখ্য বন্ধুরা আছেন যারা গ্রুপের বিভিন্ন পোস্ট দেখে সেচ্ছায় রক্ত দান করে থাকেন। আর এই সুযোগটা অনেকেই নিচ্ছেন অনেকে মনে করছেন যে গ্রুপে পোস্ট দিলেই তো রক্ত পাওয়া যাচ্ছে তাহলে তো কোনও চিন্তাই নেই তবে এই ধারনা ভুল কারন অনেকে সিজারের রোগী ওটিতে রেখে পোস্ট দিয়ে বলেন ইমারজেন্সি রক্ত লাগবে ওমুক গ্রুপ ওমুক হাসাপতালে খুবই জরুরী।

অনেক সময় মানবিক দিক বিবেচনা করে অনেকেই এগিয়ে আসছেন তবে এমন ভাবনা মারাত্মক ঝুকির কারন। একজন গর্ভবতির নারীর জন্য রক্ত না লাগলেও তবুও রক্তের ডোনারের সন্ধান করে রাখা উচিৎ অন্তত তিন মাস আগে থেকে যা সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ণ সেই কাজটিই গুরুত্ব দেয় না রোগীর  আপনজন।

অনেক ডোনার নিয়মিত রক্ত দান করে মানবতার উজ্জল দৃষ্টান্ত দেখালেও এক শ্রেনীর অসাধু ব্যবসায়ীও ওত পেতে থাকে রক্ত বেচাকেনার সেদিকেও সকলের দৃষ্টি দেয়া উচিৎ। আমাদের ফরিদপুর লাইভ গ্রুপে প্রতিনি অসংখ্য রক্তের পোস্ট আসে অনেকে শুধু রক্তের জন্যই গ্রুপকে ব্যবহার করেন তাছাড়া অন্য কোনও পোস্ট দিতে দেখা যায় না। আমরা সবসময় বলে থাকি গ্রুপ থেকে নেয়ার চাইতে দেয়ার মানসীকতা রাখুন তাহলে আপনি এবং গ্রুপের অন্যান্য বন্ধুরাও উপকৃত হবেন।

গতকাল রাতেও আমাদের মডারেটর ফয়সাল তন্ময় একজন মুমূর্ষ রোগীর জন্য ফরিদপুর শিশু হাসপাতালে গিয়ে এক ব্যাগ  রক্ত দিয়ে এসেছন আজ গ্রুপের তামান্না ইসলাম রিশা নামের এক বোন , আসিফ আশরাফ নামের এক ভাই, তারা যেভাবে তাদের অবস্থান থেকে এগিয়ে আসছেন সকলের উচিৎ সেভাবে এগিয়ে আসা।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *