ফরিদপুরের রানওয়ে

Page Visited: 130
88 Views

অনেকেরই অজানা এই বিমান ঘাটির রানওয়ে সম্পর্কে, ফরিদপুর সদর উপজেলার ভাজনডাঙ্গা নামক গ্রামে অবস্থিত, বর্তমানে গুচ্ছগ্রাম নামে পরিচিত স্থানটি। রানওয়েটি পাকিস্তান আমলে প্রশিক্ষণ বিমান উঠানামার কাজে ব্যবহৃত হতো। স্থানীয় প্রবীণ ব্যক্তিদের সাথে আলাপ করে তার সত্যতাও মিলেছে।  তছিরন্নেছা (বিহারি)  বয়স ৮০ বছর তিনি জানান এখান থেকে ছোট ছোট প্লেন আকাশে উড়ে যেতো আবার নেমে আসতো। বিমান উঠানামা নিয়মিত ছিলো না হঠাৎ আসতো যখন প্রশিক্ষণ সেশন চলতো তখন। সি প্লেনও উঠানামা করতো, এখান থেকে উড়ে যেতো আবার  ভুবনেশ্বর নদে গিয়ে নামতো (বর্তমান টেপাখোলা লেকে)। ভুবনেশ্বর নদের প্রবীণ জেলে বিশ্বনাথ মাঝি জানান তিনি বর্তমান টেপাখোলা লেকে  সি প্লেন নামতে দেখেছেন, তখন ভুবনেশ্বর নদে বড় বড় স্টিমার, ট্রলার, প্যাডেল বোট, আসতো বলেও জানা যায়। ১৯৮৮ সালের দিকে এরশাদ সরকারের আমলে এই পরিত্যক্ত রানওয়েতে নদী ভাঙ্গা অনেক পরিবারকে থাকার ব্যবস্থা করে দেন তিনি ফরিদপুর এসেছিলেন তখন। তারপর থেকেই এই রানওয়ের দুপাশে ঘরবাড়ি গড়ে উঠেছে শুধুমাত্র রানওয়েটি রয়েছে কালের সাক্ষি হয়ে।

যেভাবে যাবেন: ফরিদপুর শহর থেকে প্রথমে আসতে হবে টেপাখোলা বাস স্ট্যান্ড যদিও বাস চলে না তবে নামটি আজও রয়েছে ,বাস স্ট্যান্ড থেকে নদীর তীর ধরে বেরিবাধ সড়ক পথে সোজা চলে আসা যায় গুচ্ছ গ্রামে। আবার টেপাখোলা স্ট্যান্ড থেকে ইজিবাইকে করে ভাজনডাঙ্গা কবরস্থান সংলগ্ন বাজারে নেমে গিয়ে কিছুটা হেটেও যেতে পারবেন এই স্থানে।

গুগল ম্যাপ লিংক https://goo.gl/maps/dh3RWBwKGACiTnCF9

You may also like...

1 Response

  1. ‍Sujan Paul says:

    এই রানওয়ের জায়গার বর্তমান নাম কি? অর্থাৎ বর্তমানে কি নামে পরিচিত? এই বিষয়টি এখানে উল্লেখ নেই। কেউ যদি জায়গাটি পরিদর্শন করতে চায় তাহলে সে কোথায়? বা কিভাবে যাবে? সেটার উল্লেখ নেই লেখনীতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *