জুবিলী ট্যাংক এর ইতিহাস

Page Visited: 109
105 Views

জুবিলী ট্যাংক এর ইতিহাস

প্রকৃত পক্ষে জুবিলীর (Jubilee) অর্থ হলো উৎসব মুখর পরিবেশে জন্মতিথি পালন। আর এটাকে বাংলায় বলা হয় জয়ন্তী। ইংল্যান্ড এর রানি ভিক্টোরিয়ার শাসন আমলে ১৮৮৭ সালে ৫০ বছর পূর্তি (গোল্ডেন জুবিলী) বা রজতজয়ন্তী উৎসব পালন করা হয়েছিলো। তবে তার আগে ১৮৬২ সালে ২৫ বর্ষপূর্তিতে সিলভার জুবিলি উৎসবটি পালিত হয়নি। ১৮৬১ সালে রানি ভিক্টোরিয়ার স্বামী মা*রা গিয়েছিলো।

ছবি মডারেটর তানভীর আহমেদ

 
যেহেতু তখন ব্রিটিশ শাসন আমল তাই রানি ভিক্টোরিয়ার শাসন আমলের ৫০ বর্ষ পূর্তি উপলক্ষে ১৮৮৭ সালে গোল্ডেন জুবিলী উৎসবটি মহা-সোমারোহে পালিত হয়েছিলো। বিভিন্ন স্থানে নানাবিধ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছিলো।
যেমন চিকিৎসা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা,কলেজ প্রতিষ্ঠা,মূদ্রা চালু, ইত্যাদি, আমাদের দেশেও তারই ধারাবাহিকতায় পাবনা জেলায় এবং ফরিদপুর সদর উপেজালার চৌরঙ্গিতে পুকুর খনন করা হয় যেহেতু জুবিলী উৎসবকে ঘিরে এই কার্যক্রম তাই নামকরণ করা হয়েছিলো জুবিলী ট্যাংক। জুবিলী উৎসবকে স্মরণীয় করে রাখতে পাবনাতেও জুবিলী ট্যাংক খনন হয়েছিলো যা আজও আছে। চুয়াডাঙ্গায় ভিক্টোরিয়া জুবিলী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় আজও রয়েছে।

ছবি: মডারেটর অভিষেক চৌধুরী

অম্বিকাচরণ মজুমদার ততকালীন সময়ে ফরিদপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন জুবিলী উৎসব স্মরনীয় করে রাখতে ফরিদপুর শহরের মধ্যবর্তী স্থানে একটা বড় পুকুর খনন করা হয় জুবিলী উৎসব উপলক্ষে খনন করার কারনে নামকরণ হয়ে যায় জুবিলি ট্যাংক। শুধু তাই নয় এমন আরও ৩টি বড় পুকুর খনন করা হয়েছিলো ততকালীন সময়ে, একটি কাঠপট্টিতে,একটি কোর্ট পারে লাল দিঘী,অন্যটি পুলিশ হাসপাতাল সংলগ্ন পুকুর । এছাড়া ১৮৯৭ সালে ডায়মন্ড জুবিলী বা ৬০বর্ষপূর্তি উপলক্ষে ফরিদপুর পৌরবাসীর কথা বিবেচনা করে সুপেয় পানি সরবারাহের ব্যবস্থা করা হয়েছিলো। কালের সাক্ষী হয়ে ধবংসের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে সেই পানির ট্যাংক, রয়েছে মটরঘরও। জুবিলী ট্যাংক এর দক্ষিণ পাশে অবস্থিত বিদ্যুৎ অফিসের দেয়াল সংলগ্ন। আজও অক্ষত রয়েছে ট্যাংক এর নাম ফলক তাতে লেখা রয়েছে Dhanomoni Chowdhurani’s filter
এই ধনমনী চৌধুরানী ছিলেন রায় সাহেব ঈশান চন্দ্র সরকারের বোন।
ফরিদপুরকে দেখুন ফরিদপুরকে জানুন

ছবি মডারেটর অভিষেক চৌধুরী।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *