কাঠের পুল বা চায়না পুল

Page Visited: 102
72 Views

ঠিক এই স্থানেই ছিলো কাঠের ব্রিজ ১৯৭১ সালের আগে। এখানেই ছিলো ফরিদপুর খাল, বর্তমান হাসিবুল হাসান লাবলু সড়ক যেটি, সেটি ছিলো একটি প্রবাহমান খাল যেটি চুনাঘাটা কুমার নদ হতে এসে পাচতারা হোটেল এর পেছনে কুমার নদের সাথে যুক্ত ছিলো এখনও আছে তবে ড্রেন হিসেবে এখন আর স্বচ্ছ পানির প্রবাহ নেই।

বর্তমান পাচতারা হোটেল পূর্বের লাবনী হোটেল ছিলো যেখানে, ঠিক এই স্থানেই খালের উপরে একটি কাঠের ব্রিজ ছিলো স্বাধীনতার আগ পর্যন্ত। সেই ব্রিজ দিয়ে গরুর গাড়ি চলাচল করতো অম্বিকাপুর রেলস্টেশন থেকে পণ্য আনা নেয়া করতো সেসব গরুর গাড়িতে করে। বর্তমান বান্ধব পল্লীর সামনে ততকালীন সময়ে গরুর গাড়ির স্ট্যান্ড ছিলো, পাশেই গারোয়ানদের বসবাস ছিলো, এছাড়াও গোয়ালচামট এলাকাতেও অসংখ্য  গোয়ালঘর ছিলো, গরুর গাড়িও ছিলো বর্তমান নতুন বাস স্ট্যান্ড এর সামনে ২নং সড়কের সামনেও গরুর গাড়ির স্ট্যান্ড ছিলো। গোয়ালচামট এলাকাতে ইট ভাটা থাকায় গরুর গাড়িতে করে ইট ভাটা থেকে ইট আনা নেয়া করতো। তখন আলিমুজ্জামান সেতু যাকে আলিপুর ব্রিজ বলে চিনে থাকে সবাই সেই ব্রিজ ছিলো না গোয়ালচামট এলাকাকে যুক্ত করেছিলো বেইলি ব্রিজ যেটি ময়রাপট্টি থেকে শরিয়াতুল্লাহ বাজার পর্যন্ত এখনও চালু আছে তবে আগের বেইলি ব্রিজটি কিন্তু নেই বর্তমান বেইলি ব্রিজের পাশেই পুরাতন বেইলি ব্রিজের অংশ বিশেষ, পিলারগুলো আজও কালের সাক্ষি হয়ে দাঁড়িয়ে আছে।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *